গভীর রাতে প্রবাসীর স্ত্রীকে মিষ্টি খাওয়ানোর সময় যুবক আটক অতঃপর….

রাজবাড়ীর পাংশায় গভীর রাতে প্রবাসীর স্ত্রীকে মিষ্টি খাওয়ানোর সময় এলাকাবাসীর হাতে আটক হয়ে গণধোলাই খেয়েছেন এক যুবক।

শুক্রবার রাত ১২টার দিকে পাংশা উপজেলার বাবুপাড়া ইউনিয়নের নিশ্চিন্তপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, পাংশা উপজেলার বাবুপাড়া ইউনিয়নের বেচপাড়া গ্রামের সদর উদ্দিনের ছেলে সেলিম সরদারের সঙ্গে দীর্ঘদিন প্রেমের সম্পর্ক সৌদি প্রবাসীর স্ত্রীর।

সেলিম সরদার ও প্রবাসীর স্ত্রী উভয়েরই একটি করে সন্তান রয়েছে। এলাকাবাসী জানান, প্রবাসীর স্ত্রীর সঙ্গে সেলিমের দীর্ঘদিন ধরে অবৈধ প্রেমের সম্পর্ক চলছে।

সেই অবৈধ সম্পর্ক ঢাকতে তারা এলাকাবাসীর কাছে ভাইবোনের সম্পর্ক বলে পরিচয় দিত। ওই দিন ওই ঘটনার রাতে তাদের ঘরের মধ্যে আপত্তিকর অবস্থায় হাতেনাতে ধরেন স্থানীয়রা।

বাবুপাড়া ইউপি সদস্য মো. নাজমুল হাসান বলেন, শুক্রবার রাত ১টার দিকে তিনি ঘটনাস্থলে যান এবং সেখানে গিয়ে জানতে পারেন প্রবাসীর স্ত্রী সেলিমের কাছে মিষ্টি খেতে চেয়েছিল।

সেলিম তাকে মিষ্টি খাওয়াতে এসেছিল। বিষয়টি পাংশা থানা পুলিশকে অবগত করা হয়। পরে সকালে প্রবাসীর স্ত্রীকে তার পরিবার এসে তার বাড়িতে নিয়ে গেছেন।

তার স্বামী সৌদি থেকে বাড়িতে এসে তার স্ত্রীর বিষয়টি সুরাহা করবেন বলে জানান ইউপি সদস্য। এ বিষয়ে গণধোলাইয়ের শিকার সেলিম সরদারের পিতা সদর উদ্দিন বলেন, প্রবাসীর স্ত্রীর সঙ্গে আমার ছেলের ভাইবোনের সম্পর্ক।

আমার ছেলে তাকে মিষ্টি খাওয়ানোর জন্য তার বাড়িতে গিয়েছিল। তবে তার বাড়িতে যাওয়ার আগে আমাদের কারও কাছে কিছু বলে যায়নি।

তিনি দাবি করেন, প্রবাসীর স্ত্রীকে তার স্বামীর বাড়ি থেকে তাড়ানোর জন্য আমার ছেলের ওপর এ মিথ্যা অপবাদ দেওয়া হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *