একজন মায়ের মুখে শোনা গল্প, একটু হলেও কেঁপে উঠবে আপনার হৃদয়!

গল্প: মেয়েরা ঘরের লক্ষী। একটি সংসারকে সুন্দরভাবে গড়ে তুলতে নারীর ভূমিকা অপরিসীম। তবে সমাজে নারীরা তাদের সেই যোগ্য সম্মান কখনো পায় না।

চলার পথে জীবনে নানা রকম তুচ্ছ তাচ্ছিল্যের শিকার হতে হয় তাদের। বাবার সংসার থেকে স্বামীর সংসার এরপর সন্তানের মা হওয়া, বলতে পারেন মেয়েদের স্বাধীনতা কোথায়?

আসলে আমরা এসব কোনদিন ভেবে দেখি না। আজ আপনাদের সাথে শেয়ার করব একজন মায়ের মুখে শোনা গল্প। যে গল্প আপনার হৃদয় কে একটু হলেও নাড়া দিয়ে যাবে।

সেই গল্প: মা কে জিজ্ঞাসা করেছিলাম মা আমার স্বাধীনতা কোথায়? উত্তরে বললেন, এখন কিসের স্বাধীনতা। বিয়ের পর স্বামীকে নিয়ে যা ইচ্ছে তাই করবে, স্বাধীনতা খুঁজে নেবে!

একদিন ভোরে স্বামীকে জিজ্ঞেস করলাম- আচ্ছা মেয়েদের কি স্বাধীনতা নেই? সখ আহ্লাদ নেই? উত্তর একটাই বিয়ের আগে যা করেছো করেছো এখন করা যাবে না।

লোকে কি বলবে? ছেলে-মেয়েদের মানুষের মতো মানুষ করো, পরে যা ইচ্ছে করতে পারবে!! আজ আমার ছেলের বয়স কুড়িতে পা দিলো। বললাম আচ্ছা বাছা মায়েদের স্বাধীনতা কোথায়? বলতে পারিস?? ছেলে আমার মস্ত বড় গম্ভীর মুখে উত্তর দিলো হেসে-

বললো, এখন কি আর ওই বয়স আছে নাকি যা ইচ্ছে করবে?অনেক কিছুই করেছো জীবনে এবার আমাদের মতো করে চলার চেষ্টা করো।জানেন আপনি? মেয়ে মানুষের স্বাধীনতা হয় না,ঘর হয় না,তারা মানিয়ে নিতে নিতে আর স্বার্থের সবটুকু দিতে দিতে মৃত্যুবরণ করে! সত্যিই আমরা কেন এভাবে ভাবি না। সংগৃহীত

Leave a Reply

Your email address will not be published.