বুয়েটে চান্স পাওয়া প্রসঙ্গে যা বললেন আবরার ফাহাদের ছোট ভাই

সংবাদ: বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়েছে।

প্রকাশিত ফলে ৪৫০তম হয়েছেন ছাত্রলীগের হাতে নির্মমভাবে হত্যার শিকার আবরার ফাহাদের ছোট ভাই আবরার ফাইয়াজ।

বুয়েটে চান্স পাওয়া প্রসঙ্গে আবরার ফাইয়াজ বলেন, ভাইয়ার মৃত্যুর পর থেকেই নিজের মনের মধ্যে জেদ চেপেছিল। যেভাবেই হোক আমাকে বুয়েটে চান্স

পেতেই হবে-এমন একটি তাড়না ছিল। বুয়েটে যেদিন ভর্তি পরীক্ষা দিতে যাই সেদিন ভাইয়াকে খুব বেশি মিস করেছিলাম। তিনি বলেন, আমার পরিবারের জন্য আমার কিছু একটা করতে হবে।

নিজেকে সেভাবেই প্রস্তুত করেছিলাম। কেননা ভাইয়া মারা যাওয়ার পর আমার পরিবারকে দেখার মতো কেউ ছিল না। উচ্চমাধ্যমিকের পরীক্ষা শেষ করে ভর্তির জন্য নিজেকে প্রস্তুত করেছি। আমার এই কৃতিত্ব আমার ভাইয়ের।

বুয়েটে ভর্তি হবেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে আবরার ফাইয়াজ আরও বলেন, আমি আইইউটিতে কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে ভর্তি হয়েছি। এজন্য একটু কনফিউজড। বিষয়টি আমার পরিবারের সাথে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেব। এদিকে ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় প্রথম হয়েছেন আসীর আনজুম খান। তিনি রাজধানীর নটরডেম কলেজ থেকে এইচএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন। এর আগে গত ১৮ জুন বুয়েট ক্যাম্পাসে ৬ হাজার শিক্ষার্থীকে নিয়ে লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। সকাল ও বিকেল দুই পর্বে অনুষ্ঠিত হয়। প্রকৌশল বিভাগ সমূহ এবং নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের জন্য ‘মডিউল-এ’ সকাল ১০টা-১২টা ও প্রকৌশল বিভাগসমূহ, নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগ এবং স্থাপত্য বিভাগের জন্য ‘মডিউল-বি’ দুই শিফটে বেলা ২টা থেকে ৩টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হয়।

প্রসঙ্গত, প্রকৌশল, পুরকৌশল, যন্ত্রকৌশল, তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক কৌশল এবং স্থাপত্য ও পরিকল্পনা অনুষদ সমূহের অধীনে ১২টি বিভাগে স্নাতক শ্রেণিতে ছাত্র-ছাত্রী ভর্তি করা হবে। এবারের ভর্তি পরীক্ষায় পার্বত্য চট্টগ্রাম ও অন্যান্য এলাকার ক্ষুদ্র জাতি গোষ্ঠীভুক্ত প্রার্থীদের জন্য প্রকৌশল বিভাগ সমূহ এবং নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের জন্য মোট ৩টি ও স্থাপত্য বিভাগে ১টি সংরক্ষিত আসনসহ সর্বমোট ১ হাজার ২৭৯টি আসনের বিপরীতে প্রার্থী সংখ্যা ১৭ হাজার ৩৪ জন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.