ছিনতাইকারীর ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ার ঘটনায় যা বললেন তরুণী (ভিডিও)

রাজধানীর মিরপুর থেকে বাসে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) এক নারী শিক্ষার্থীর সাহসিকতায় ধরা পড়েছে ছিনতাইকারী।

কারও সহায়তা ছাড়া একাই একজনকে ধরে পুলিশে দিয়েছেন তিনি। শুধু তাই নয়, ছিনতাইকারীর আরেক সহযোগীকেও কৌশলে ধরিয়ে দিয়েছেন এই শিক্ষার্থী।

এদিকে একজন ছাত্রী হয়ে একা দুজন ছিনতাইকারীকে পাকড়াও করার পরও পুলিশ তার মোবাইল ফোনটি উদ্ধার করতে পারেনি। এ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন ওই ছাত্রী। রাজধানীর কারওয়ান বাজারে গত বুধবার (২০ জুলাই) সন্ধ্যার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

মিরপুর থেকে বাসে পুরান ঢাকায় যাচ্ছিলেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের এই শিক্ষার্থী। জানালা দিয়ে তার মোবাইল ফোনটি ছিনিয়ে নেয় এক ছিনতাইকারী। তাৎক্ষণিক তিনি বাস থেকে নেমে ছিনতাইকারীকে ধাওয়া করেও ধরতে পারেননি তিনি। এরই মাঝে ওই শিক্ষার্থী ঘটতে দেখেন আরেক ছিনতাইয়ের ঘটনা।

এক নারীর ব্যাগ নিয়ে পালাচ্ছিল আরেক ছিনতাইকারী। হাতেনাতে তাকে ধরে ফেলেন ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী। মাটিতে ফেলে নিজের মোবাইল ফোন হারানোর রাগ ঝাড়তে দেখা যায় ব্যাগ ছিনতাইকারীর ওপর।

এই ঘটনার সময় সেখানে বেশকিছু লোক জড়ো হয়। তাদের একজন ছিলেন দৈনিক মানবজমিন পত্রিকার ফটোসাংবাদিক জীবন আহমেদ। তার সহায়তায় আটকে রাখা ছিনতাইকারীর আরেক সহযোগীকে ধরে ফেলেন ওই শিক্ষার্থী।

জীবন আহমেদ জানান, তিনি ভুক্তভোগীর নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কায় ছিলেন। কারণ এসব ক্ষেত্রে ছিনতাইকারীরা ছুরি দিয়ে আঘাত করার আশঙ্কা থাকে। তাই তিনিও ওই শিক্ষার্থীর সঙ্গে যান। কিছুটা দূরত্ব বজায় রেখে ব্যাগ ছিনতাইকারীকে পাকড়াও করা হয়। এরপর ঘটনাস্থলে আসে পুলিশ। আটকে রাখা দুই ছিনতাইকারীসহ অভিযোগ নিতে ওই ছাত্রীকেও থানায় নিয়ে যাওয়া হয়।

পরে ওই শিক্ষার্থী আরটিভি নিউজকে জানিয়েছেন, দুই ছিনতাইকারীকে পুলিশে দিয়েছি। এখনও পর্যন্ত পুলিশ আমার ফোন উদ্ধার করতে পারেনি। এটা পুলিশের ব্যর্থতা ছাড়া আর কিছু নয়।

সেই ভিডিও দেখতে এখানে ক্লিক করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.