এটা পাকিস্তানের উচিৎ, আমরা খুশি হবো

পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আব্দুল মোমেন মনে করেন, ১৯৭১ সালে নৃশংসতার জন্য পাকিস্তানের ক্ষমা চাওয়া উচিত। তবে ভবিষ্যতের জন্য

পাকিস্তানের সঙ্গে স্বাভাবিক সম্পর্ক রাখার পক্ষপাতী তিনি। বৃহস্পতিবার (২১ জুলাই) পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিকদের একথা বলেন।

বাংলাদেশের ডি-৮ পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের সম্মেলন হবে, এজন্য পাকিস্তানসহ সব সদস্যদের পররাষ্ট্র মন্ত্রীদের দাওয়াত দেওয়া হয়েছে। ডি-৮ এর মত সংস্থার মাধ্যমে

পাকিস্তানের সঙ্গে বাংলাদেশ ভালো সম্পর্ক করবে কিনা জানতে চাইলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী পালটা প্রশ্ন করে জিজ্ঞাসা করেন, ‘আপনি কী ধরনের সম্পর্ক চান?’ উত্তরে সাংবাদিক ‘ভালো সম্পর্ক চাই’

জানালে তিনি বলেন, ‘আমরাও ভালো সম্পর্ক চাই। আমরা স্বাভাবিক সম্পর্ক চাই। আমাদের নীতি হচ্ছে সবার সঙ্গে বন্ধুত্ব কারো সঙ্গে বৈরিতা নয়।’ পাকিস্তানের সঙ্গে বাংলাদেশের বেশ কিছু অমীমাংসিত বিষয় রয়েছে,

এ বিষয়ে জানতে চাইলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, যেসব অমীমাংসিত বিষয় রয়েছে সেগুলো সব সময় আমরা উত্থাপন করে চলেছি। তিনি বলেন, এটাও সত্য বঙ্গবন্ধু ৭৪ সালে যখন পাকিস্তানে যান, তখন উনি বলেছেন, কী হয়েছে না হয়েছে সেটি ভুলে যান।

আমাদের ভবিষ্যতের জন্য সামনের দিকে এগিয়ে যেতে হবে। এতে করে উভয় দেশের মানুষের মঙ্গল হবে। বাংলাদেশ বঙ্গবন্ধুর দর্শনের বিশ্বাস করে জানিয়ে তিনি বলেন, আমাদের সামনের দিকে এগিয়ে যেতে হবে। তবে পাকিস্তানেরও দায়-দায়িত্ব আছে। তারা যে অপরাধ করেছে সেটির জন্য তাদের মাফ চাওয়া উচিত। আমরা খুশি হবো তারা যদি প্রকাশ্যে ক্ষমা চায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.