বাড়ি ভাঙ্গা প্রসঙ্গে যা বললেন সাবেক এমপি গোলাম মাওলা রনি!

নিউজ ডেক্স: গতকাল পটুয়াখালী ৩-আসনের সাবেক সংসদ সদস্য (এমপি) গোলাম মাওলা রনির গলাচিপা উপজেলার উলানিয়া বাজারের দোতলা বাড়িটি ভেঙে ফেলেছে স্থানীয় প্রশাসন।

সরকারি জমিতে অবৈধভাবে নির্মাণ করায় গতকাল সকালে পটুয়াখালী জেলা প্রশাসন বাড়িটি ভেঙে দেয়। এনিয়ে সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে চলছে নানা আলোচনা- সমালোচনা।

আর চলমান এই ঘটনাটি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিজের ফেসবুক পেজে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন গোলাম মাওলা রনি। যা পাঠকদের উদ্দেশ্যে হুবহু তুলে ধরা হলো-

আজকের দিনের কয়েকটি পত্রিকার অন্যতম খবর হলো, সাবেক সংসদ সদস্য গোলাম মাওলা রনির অবৈধ ভবন উচ্ছেদ করা হয়েছে ! গতকাল কয়েকটি টেলিভিশন একই সংবাদ সারাদিন প্রচার করেছে !

আমি সংসদ সদস্য হবার পর আমার প্রতিদ্বন্দ্বীরা কিছু পত্রিকা মালিকদের যোগসাজশে আমার বিরুদ্ধে সেই ২০০৯ সাল থেকে যে অপপ্রচার শুরু করেছিলো তা বন্ধ হয়ে যায় যখন আমি পালের গোদাদের বিরুদ্ধে মোট ৩০০ কোটি টাকার ক্ষতি

পুরুনের মামলা করি যা ২০১০ থেকে এখনো চালাচ্ছি এবং আমার মামলার বিবাদীরা দেশের প্রায় ২০ ভাগ জিডিপি নিয়ন্ত্রণ করে ! যে জমিটির কথা বলা হচ্ছে তা পৈতৃক ! দখল সূত্রে মালিকানা ১৯৬০ সাল থেকে। যে ভবনের কথা বলা হচ্ছে তা নির্মিত

হয়েছে আমি সংসদ সদস্য হবার বহু আগে। যে এক সনা লিজের কথা বলা হচ্ছে তার জন্য আমি বা আমার পরিবার কোন দিন দরখাস্ত করিনি ! কোন দিন সেই লিজ নবায়ন করিনি ! আর সেই লীজ কে বা কারা কখন আমাদের পক্ষে ইস্যু করেছে তাও জানতাম না !

এমপি হবার আগে কোন দিন শুনিনি যে, যায়গাটি খাস ! আবার এমপি হবার পর জেলা ভূমি কমিটির উপদেষ্টা এবং উপজেলা ভূমি কমিটির প্রধান হিসাবে অনেক খোঁজ নিয়েও সংশ্লিষ্ট ভূমিতে সরকারী মালিকানার দলিল খুঁজে পাইনি ।

যদি পেতাম তবে সরকারের নিকট থেকে দীর্ঘ মেয়াদে লীজ নেয়া বা নিয়ম মেনে ৫ শতাংশ জমি যার সরকারী মূল্য ২০১০ সালে পাঁচ হাজার টাকার বেশি ছিলনা তা কিনে নেয়ার মতো সচ্ছলতা নিশ্চয়ই আমার ছিল !

জমিটির বর্তমান মৌজা মূল্য সাকুল্যে মাত্র চল্লিশ হাজার থেকে বড় জোর পঞ্চাশ হাজার টাকা । আর যে ভবনটি ভাঙা হয়েছে সেটির মূল্য কয়েক কোটি টাকা । জেলা প্রশাসন এবং উপজেলা প্রশাসনের যেসকল কর্তা কাজটি করেছেন তাদেরকে ধন্যবাদ ! তারা যেখানে কর্মটি শেষ করেছেন সেখান থেকেই

আমি আমার কর্ম কিভাবে শুরু করবো তা যখন তারা জানতে পারবেন তখন তারা এক অনন্য অনুভূতি তারা তাড়িত হবেন ইনশাল্লাহ ! জীবনের বহু পথ পাড়ি দিয়ে এমন রাস্তা দিয়ে সফলতার কেন্দ্রে পৌঁছে গিয়েছি যা আমার শত্রু-মিত্র-প্রতিদ্বন্দ্বীরা চিন্তাও করতে পারেনি! মহান আল্লাহ আমাকে যে সবর-হিকমা-সাহস-শক্তি এবং কৌশল শিক্ষা দিয়েছেন তা দিয়ে কোন সংঘাত ছাড়াই জীবনের অনেক যুদ্ধে জয়ী হয়েছি । আগামী দিনেও হবো ইনশাল্লাহ !

Leave a Reply

Your email address will not be published.