ভালবাসায় সিক্ত আমি, প্রতিদিন ৫-৬’শ মানুষ আমাকে দেখতে এসেছে: সানাই

মিডিয়া: সিনেমার নায়িকা হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে শোবিজে পা রাখেন সানাই মাহবুব। শুরুটা ছিল মডেলিং দিয়ে। এরপর সিনেমায় নাম লেখান, অভিনয়ও করেন।

কিন্তু নায়িকা রূপে আত্মপ্রকাশ করতে পারেননি। এর মাঝে বুকে সার্জারি করিয়ে বিতর্ক-সমালোচনার কেন্দ্রে চলে আসেন। তবে সব সমালোচনা পেছনে ফেলে শোবিজ জগত ছেড়ে দিয়েছেন সানাই।

বেছে নিয়েছেন ইসলামি জীবনধারা। এখন তিনি নিয়মিত বোরকা-হিজাব পরেন। কিছুদিন আগে বিয়েও করেছেন। নীলফামারীর এক ব্যক্তির সঙ্গে গত ২৭ মে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন এ সাবেক মডেল-নায়িকা।

বিয়ের পর ঢাকায় চলে আসেন সানাই। কারণ তার স্বামী আবু সালেহ মুসা ঢাকায় একটি ব্যাংকে কর্মরত। ঈদ উপলক্ষে তারা বাড়িতে গিয়েছিলেন। ওই সময় সানাইকে দেখার জন্য তার স্বামীর বাড়িতে উৎসুক মানুষের ভিড় লেগে যায়।

সানাইয়ের দাবি, প্রতিদিন প্রায় ৫ থেকে ৬’শ মানুষ তাকে এক ঝলক দেখার জন্য এসেছে। বিষয়টি নিয়ে ফেসবুকে কয়েকটি ছবি পোস্ট করে সানাই লিখেছেন, ‘ঈদে শ্বশুর বাড়িতে কাটানো কিছু মুহূর্ত।

আশেপাশের মানুষের ভালোবাসায় আমি সিক্ত। ঈদের দিন থেকে পরের ৫ দিন পর্যন্ত প্রায় ৫০০-৬০০ মানুষ প্রতিদিন আমাকে এক ঝলক দেখতে এসেছে। এমনও হয়েছে- ঘুমিয়েছিলাম, ঘুম থেকে ডেকে তুলেছে কারণ মানুষ দেখতে এসেছে তাই!

এটা কয়জনকে দেখতে আসে!’সন্তুষ্টি প্রকাশ করে সানাই লিখেছেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ সব কিছুর জন্য। আমি তাদের আপ্যায়নে মুগ্ধ! নেগেটিভ কিছু যে ছিল না তা না, কিন্ত পজিটিভের মাত্রা এতোটাই বেশি ছিল, যে নেগেটিভের দিকে তাকানোর সুযোগ পাইনি!’

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালেও সানাইয়ের একটি বিয়ের খবর শোনা যায়। সাবেক এক মন্ত্রীর সঙ্গে তার বাগদান হয়েছিল। সানাই নিজেও খবরটির সত্যতা নিশ্চিত করেছিলেন। তবে ওই বিয়ে সম্পর্কে পরবর্তীতে আর কোনো আপডেট পাওয়া যায়নি। ২০১৬ সালে ‘ভালোবাসা ২৪×৭’ নামে একটি সিনেমার মাধ্যমে ঢালিউডে পা রেখেছিলেন সানাই। পরবর্তীতে আরও কয়েকটি সিনেমায় চুক্তিবদ্ধ হন। তবে তার কোনো সিনেমাই মুক্তি পায়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.