গ্রেপ্তারের আগে সাবরিনার শেষ স্ট্যাটাস, এবং…

সংবাদ: করোনাভাইরাস পরীক্ষা নিয়ে জালিয়াতির মামলায় জেকেজি হেলথকেয়ারের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও)

আরিফুল হক চৌধুরী এবং তার স্ত্রী ও প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারপারসন ডা. সাবরিনা চৌধুরীসহ আট আসামির সাজা হবে কি না, তা আজ (মঙ্গলবার) জানা যাবে। ঢাকার অতিরিক্ত মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট তোফাজ্জল হোসেন

দুপুরের দিকে এ মামলার রায় ঘোষণা করার কথা রয়েছে। ইতিমধ্যেই আসামিদের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালতে হাজির করা হয়েছে।

পেশায় চিকিৎসক সাবরিনা চৌধুরী জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের কার্ডিয়াক সার্জারি বিভাগের রেজিস্ট্রারের দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে খুবই সরব ছিলেন সাবরিনা।

প্রায়ই তিনি স্বামীর সাথে দেশবিদেশের বিভিন্ন জায়গায় ঘুরতে যাওয়ার ছবি পোস্ট করতেন। বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে নাচের ভিডিও পোস্ট করতেন। এছাড়া ইউটিউবে সচেতনতামূলক বিভিন্ন ভিডিও পোস্ট করতেন সাবরিনা।

স্বামী আরিফুলকে গ্রেপ্তারের পর ২০২০ সালের ১২ জুলাই সাবরিনাকেও গ্রেপ্তার করা হয়। ফলে, খুব স্বাভাবিকভাবেই তাকে আর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে কোনো পোস্ট করতে দেখা যায় নি।

গ্রেপ্তারের ঠিক আগের দিন অর্থাৎ ১১ জুলাই সর্বশেষ ফেসবুকে কিছু পোস্ট করেছিলেন সাবরিনা। সেদিন তিনি ফেসবুকে লিখেছিলেন, “সত্য মিথ্যার লড়াই এ দেরীতে হলেও সত্যের জয় অবসম্ভাবী!”

জানা গেছে, সাবরিনা সহ আসামীদের বিরুদ্ধে জাল জালিয়াতি, বিশ্বাসভঙ্গ, অর্থ আত্নসাৎ, প্রতারণার অভিযোগ আনা হয়েছিল উক্ত মামলায়। দোষী সাব্যস্ত হলে সব ধারা মিলিয়ে তাদের মোট ২১ বছর ৬ মাসের শাস্তি হতে পারে। এগুলোর মধ্যে একটি ধারায় সর্বোচ্চ শাস্তি সাত বছরের কারাদণ্ডেরও সুযোগ রয়েছে। এই মামলায় সাবরিনার জয় নাকি পরাজয় হয়, সেটা জানতে অপেক্ষা করছেন অনেকেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published.