অস্ত্র হাতে ভাইরাল সেই যুবলীগ নেতা অস্ত্র মামলায় নয়! চেক জালিয়াতির মামলায় গ্রেফতার

:আলোচিত কুমিল্লায় অ’স্ত্র হাতে ভাইরাল হওয়া যুবলীগ নেতা মনিরুজ্জামান জুয়েলকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। সোমবার (১৮ জুলাই) দুপুরে কুমিল্লা

জেলা যুগ্ম দায়রা জজ আদালতের বিচারক সমরেশ শীল তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কুমিল্লা আদালত পুলিশের পরিদর্শক মুজিবুর রহমান।

তিনি বলেন, যুবলীগ নেতা মনিরুজ্জামান জুয়েলের বিরুদ্ধে চেক জালিয়াতির তিনটি মামলায় সোমবার দুপুরে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত। এর আগে চৌদ্দগ্রাম থানা পুলিশ তাকে আদালতে তুললে জামিন চান তার আইনজীবী।

এর আগে রোববার (১৭ জুলাই) রাতে রাজধানীর বনানী এলাকা থেকে বনানী থানা পুলিশের সহযোগিতায় চৌদ্দগ্রাম থানার পুলিশ গ্রেফতার করে। রাজধানী থেকে গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন, চৌদ্দগ্রাম থানার ওসি শুভ রঞ্জন চাকমা

উল্লেখ্য, ১৪ জুলাই বিকেলে শ্রীপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং শ্রীপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাহ জালাল মজুমদারের ওপর হামলা চালান চৌদ্দগ্রাম উপজেলার শ্রীপুর ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা কামরুজ্জামান জুয়েল। হামলার পর তার অস্ত্র হাতে একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়।

ছবিতে এক হাতে অস্ত্র, অন্য হাতে সিগারেট নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গেছে তাকে। ছবিটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে সমালোচনা শুরু হয়। পরে জুয়েল তার স্ত্রী ফারজানা হককে দিয়ে গত শুক্রবার (১৫ জুলাই) রাত ১২টার দিকে অস্ত্রটি চৌদ্দগ্রাম থানায় জমা দেন। রোববার রাতে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

এ ছাড়া তার বিরুদ্ধে তিনটি চেক জালিয়াতির মামলার বিভিন্ন ধারায় এক বছর করে সাজা হয়ে আছে। মামলার ধারাগুলো হলো, স্পেশাল ট্রাইব্যুনালে ৯৯১/২১-এ এক বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড। চেক জালিয়াতি মামলা ৩৯৪/২০-এ এক বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড, ৯৮৪/২১-এ এক বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড সিআর৩৭৯/২০ এবং স্পেশাল ট্রাইব্যুনালে ৯৮৫/২১ ধারায় এক বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড। সেসব ধারায় আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.