শাশুড়িকে হ’ত্যার পর ৬ টুকরো করে মাটিচাপা, জানা গেল লোমহর্ষক বর্ণনা

কক্সবাজারের রামুতে বৃদ্ধা শাশুড়িকে কুপিয়ে হ’ত্যার পর ছয় টুকরো করে মাটিচাপা দেওয়ায় পুত্রবধূ রাশেদা বেগমকে

(২৫) আটক করেছে পুলিশ। একইসঙ্গে তার বাড়ির আঙিনার মাটি খুঁড়ে ছয় টুকরো লা’শ উদ্ধার করেছ পুলিশ। রবিবার (১৭ জুলাই)

সন্ধ্যা ৬টার দিকে উপজেলার দক্ষিণ মিঠাছড়ির মধ্যম উমখালীর হাজিরপাড়া থেকে লাশ উদ্ধারের পর পুত্রবধূকে আটক করা হয়েছে।

নিহত শাশুড়ির নাম মমতাজ বেগম (৬০)। তিনি ওই এলাকার মৃত আব্দুল কাদেরের স্ত্রী। নিহতের ছেলে ও রাশেদা বেগমের স্বামী মো. আলমগীর হোসেন বলেন,

শনিবার দুপুর থেকে নিখোঁজ ছিলেন মা মমতাজ বেগম। তাকে বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করেও পাওয়া যায়নি। রবিবার বিকাল ৩টার দিকে বাড়ির পাশে টিউবওয়েলের কাছে গেলে নতুন মাটি খোঁড়া দেখতে পাই।

তখন কিছু মাটি খুঁড়েই মায়ের শাড়ি দেখে স্থানীয়দের জানাই। স্থানীয়রা পুলিশে খবর দিলে একটি টিম ঘটনাস্থলে এসে মাটিচাপা অবস্থায় মায়ের ছয় টুকরো লাশ উদ্ধার করে। রামু থানার পরিদর্শক (তদন্ত) অরুপ চৌধুরী বলেন, প্রাথমিকভাবে শাশুড়িকে হত্যার কথা স্বীকার করেছেন রাশেদা বেগম। তাকে আটক করা হয়েছে।

তিনি বলেন, অভিযুক্ত রাশেদা স্বীকার করেছেন শনিবার সকালে মমতাজ বেগমের সঙ্গে পারিবারিক বিষয় নিয়ে বাগবিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে দা দিয়ে তাকে কুপিয়ে হ’ত্যা করেন। এরপর লা’শ টুকরো টুকরো করে বস্তাবন্দি করেন। পরে বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে টিউবওয়েলের পাশে বস্তাবন্দি মরদেহ মাটিচাপা দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *