আওয়ামী লীগ প্রতিদ্বন্দ্বিতাহীন নির্বাচন চায় না, যা বললেন ওবায়দুল কাদের

আওয়ামী লীগ প্রতিদ্বন্দ্বিতাহীন নির্বাচন চায় না বলে জানিয়েছেন দলের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ প্রতিদ্বন্দ্বিতাহীন নির্বাচন চায় না, চায় প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক নির্বাচন। রোববার সকালে বাংলাদেশ

সড়ক পরিবহন কর্পোরেশন – বিআরটিসির প্রধান কার্যালয়ে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা- কর্মচারীদের সাথে মতবিনিময় সভা শেষে সাংবাদিকদের একথা বলেন। ওবায়দুল কাদের বলেন, আওয়ামী লীগ কখনও ফাঁকা মাঠে গোল দিতে চায় না।

আরোও পড়ুন: নির্বাচনের সময় কেউ যদি তলোয়ার নিয়ে দাঁড়ায় তাহলে প্রতিপক্ষকে রাইফেল নিয়ে দাঁড়াতে বললেন প্রধান নির্বাচন নির্বাচন কমিশনার (সিইসি)

কাজী হাবিবুল আউয়াল। রোববার সকালে আগারগাঁওয়ের নির্বাচন কমিশন ভবনে জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলনের (এনডিএম) সঙ্গে সংলাপে এমন কথা বলেন তিনি।

সিইসি বলেন, আমরা সহিংসতা বন্ধ করতে পারবো না। রাজনৈতিক দলগুলোকে দায়িত্ব নিতে হবে। কারণ খেলোয়াড় তো আপনারা। আপনারা মাঠে খেলবেন আর আমরা রেফারি।
আমাদের অনেক ক্ষমতা আছে। ক্ষমতা প্রয়োগ করবো। নির্বাচনকে অংশগ্রহণ করতে আমরা সর্বাত্মক চেষ্টা করবো। দলগুলোর সহায়তা ছাড়া আমরা ব্যর্থ হয়ে যাবো। আপনাদের সমন্বিত প্রয়াস থাকবে। কেউ যদি তলোয়ার নিয়ে দাঁড়িয় তাহলে আপনাকে রাইফেল বা তলোয়ার নিয়ে দাঁড়াতে হবে। আপনি যদি দৌড় দেন, তাহলে আমি কি করবো? কাজেই আমরা সাহায্য করবো। পুলিশের উপর, সরকারের উপর আমাদের কমান্ড থাকবে।

তিনি বলেন, নির্বাচনের সময় যেটি থাকবে সেটি কিন্তু সরকার। আমি বারবার বলেছি, রাজনৈতিক দল আর সরকার এক নয়। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আওয়ামী লীগের সভানেত্রী। কিন্তু যখন তিনি প্রধানমন্ত্রী তখন তিনি সরকার প্রধান আওয়ামী লীগের সভানেত্রী নয়। এটি বুঝতে হবে। আমরা সরকারের সাহায্য চাইবো। সরকার যদি সহায়তা না করে, তাহলে নির্বাচনের পরিণতি খুবই ভয়াবহ হতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.