অনন্ত জলিলের শত কোটি টাকার সিনেমা নিয়ে মুখ খুললেন ডিপজল

বিনোদন: এবারের ঈদে তিনটি সিনেমা মুক্তি পেয়েছে। এই সিনেমা তিনটির মধ্যে অনন্ত জলিলের ‘দিন দ্য ডে’ সিনেমাটি নিয়ে সবচেয়ে বেশি আলোচনা হচ্ছে।

সিনেমাটি ইরানের সঙ্গে যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত হয়েছে। শুটিং হয়েছে বাংলাদেশ, ইরান, আফগানিস্তান ও তুর্কিয়ে। সিনেমাটির মূল চরিত্রে অভিনয় করেছেন অনন্ত ও বর্ষা।

এছাড়া লেবানন, ইরান ও তুর্কিয়ের অভিনেতা-অভিনেত্রী ও কলাকুশলীরা সিনেমাটিতে রয়েছেন। সিনেমাটির বাজেট ১০০ কোটি টাকা। এটি মুক্তির পর এ নিয়ে যেমন আলোচনাও রয়েছে,

তেমনি কেউ কেউ সমালোচনাও করছেন। মুক্তিপ্রাপ্ত অন্য সিনেমার পরিচালক থেকে শুরু করে কোনো কোনো অভিনেতা-অভিনেত্রী সমালোচনা করেছেন। এ ব্যাপারে চলচ্চিত্রের মুভিলর্ডখ্যাত ডিপজল সাংবাদিকদের কাছে তার প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে বলেন,

সবকিছুর একটা লিমিট আছে। বাস্তবতা মানতে হবে। আমাদের সিনেমার পরিস্থিতি ভালো না। এর মধ্যে কিছু সিনেমা মুক্তি পাচ্ছে। তবে যে সিনেমাটি নিয়ে বেশি সমালোচনা শুনছি, তা কাম্য নয়। এক্ষেত্রে সিনেমাটির যে বাজেটের কথা বলা হচ্ছে,

তার বাস্তবতা নিয়ে অনেকের মধ্যে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। আমার কথা হচ্ছে, সিনেমার প্রচার-প্রচারণার মাধ্যমে দর্শকের কাছে পৌঁছানোর দরকার আছে। এক্ষেত্রে, এমন কোনো প্রচার-প্রচারণা চালানো উচিৎ নয়, যা অতিরঞ্জিত এবং বিশ্বাসযোগ্যতা হারায়। প্রচার-প্রচারণার কারণে দর্শক হলে গিয়ে সিনেমাটি দেখে যদি তার সঙ্গে মিল না পায়, তাহলে তারা হতাশ হয়। এটা তাদের কাছে ধোকা হয়ে দাঁড়ায়।

ডিপজল বলেন, এখন দর্শক অনেক কিছু জানে। কোন সিনেমার বাজেট কত হতে পারে, তা তারা বুঝতে পারে। কারণ, তারা হলিউড-বলিউডসহ বিশ্বের সবদেশের সিনেমা এখন দেখে অভ্যস্ত হয়ে গেছে। তারা একটি সিনেমা দেখে বলে দিতে পারে সিনেমাটি কতটা ব্যয়বহুল। বাস্তবতা হচ্ছে, আমাদের দেশের সিনেমার বাজার ছোট হয়ে গেছে। বছরে গড়ে ৪০-৫০টি হলে সিনেমা চলে। ঈদের সময় কিছু কিছু সিনেমা হল খুলে আবার বন্ধ করে দেয়া হয়। এমন বাস্তবতায় এক কোটি টাকা বাজেটের সিনেমার লাভ করা দূর থাক, এর মূল টাকা উঠে আসাও অসম্ভব। কাজেই, সিনেমার বাজেট নিয়ে অবাস্তব প্রচার-প্রচারণা না করাই ভালো।

ডিপজল বলেন, কেউ শত কোটি কেন, তার চেয়েও বেশি টাকা খরচ করে সিনেমা বানাতে পারে। হলিউড-বলিউডে এমন সিনেমা নির্মিত হয়। সেগুলো দেখে দর্শক বুঝতে পারে। তবে আমাদের দেশে এত টাকা ব্যয় করে সিনেমা বানানোর বাস্তবতা নেই। সিনেমাটি দেখে যদি দর্শক মনে করে, এত টাকার সিনেমা নয়, তাহলে ওই নির্মাতা দর্শকের কাছে হাসির পাত্র হয়। তাছাড়া টাকা খরচ করলেই হয় না, সিনেমার গল্প এবং শিল্পীদের অভিনয় জোরদার হতে হয়। এটা না হলে যত টাকাই খরচ করা হোক না কেন, ওই সিনেমা ব্যর্থ হতে বাধ্য। সবচেয়ে বড় বিষয় হচ্ছে, কেউ যদি আমাদের সিনেমার বাজার না বুঝে কোটি কোটি টাকা খরচ করে সিনেমা বানায়, আর সেটা যদি মানসম্মত না হয়, তাহলে এটা বোকামি ছাড়া কিছু নয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.