এবার বন্যার্তদের পাশে দাঁড়ালো যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসীরা

সর্বনাশা বন্যায় মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাবাসীর জন্যে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবাসীরা নগদ অর্থ সংগ্রহ করছেন। ইতিমধ্যেই সিলেট অঞ্চলের বেশ কয়েকটি স্থানে ত্রাণ-

সামগ্রি বিতরণও করা হয়েছে। নিউইয়র্ক, ফ্লোরিডাসহ বিভিন্ন স্থানে প্রায় প্রতিদিনই তহবিল সংগ্রহের অনুষ্ঠান হচ্ছে। অথবা রাস্তায় দাঁড়িয়ে বন্যার্তদের জন্যে নগদ অর্থ

সংগ্রহের ঘটনাও ঘটছে। অর্থাৎ বাংলাদেশের স্বজনের জন্যে আগের মতোই প্রবাসীরা সরব হয়েছেন। ফ্লোরিডার প্রবাসীরা ‘মায়ামী বৈশাখী মেলা’র পক্ষ বিশেষ এক উদ্যোগ গ্রহণ করে।

সে প্রক্রিয়ায় সংগৃহীত অর্থ ইতিমধ্যেই সুনামগঞ্জ ও মৌলভীবাজার জেলার জুড়ি এলাকার বন্যার্ত মানুষের জন্য পাঠানো হয়। এ উদ্যোগের অন্যতম কম্যুনিটি লিডার ফখরুজ্জামান এ সংবাদদাতাকে জানান,

প্রায় ১১ লাখ টাকার পণ্য কিনে তা ক্ষতিগ্রস্ত ৬৫০ পরিবারের মধ্যে গত সপ্তাহে বিতরণ করা হয়েছে। ত্রাণ-সামগ্রি বিতরণের এ কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে আমরা বদ্ধপরিকর। একইভাবে, বন্যার্তদের পাশে

পেনসিলভেনিয়ার গোলাপগঞ্জ সোসাইটিও নগদ অর্থ সংগ্রহ করে এবং তা সিলেটের গোলাপগঞ্জ পৌরসভা ও উপজেলার ১১টি ইউনিয়নের বন্যার্তদের মাঝে ৭ জুলাই থেকে বিতরণ করা হচ্ছে।

বাংলাদেশে অবস্থানরত এই সোসাইটির সহ-সভাপতি ওলিউর রহমানের নেতৃত্বে কার্যকরী পরিষদের আরো বেশ কিছু দায়িত্বশীলদের নিয়ে পৌর মেয়র ও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এবং স্থানীয়দের সহযোগিতায় এ অর্থ বিতরণ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন সোসাইটির সভাপতি সালা ইউ খান ও সাধারণ সম্পাদক হাসান আহমেদ।

সোসাইটির সভাপতি আরো বলেন, ‘কয়েক মাস আগে গঠিত হয়েছে এই সোসাইটি। নতুন হওয়ার পরও সোসাইটির সকল সদস্য, শুভাকাঙ্খি হাত খুলে দান করেছেন এই কার্যক্রমে। আমরা বাংলাদেশের যে কোন দুর্যোগে গোলাপগঞ্জবাসীর পাশে থাকার অঙ্গিকার করছি। এছাড়াও পেনসিলভেনিয়ায় অবস্থানরত সংগঠনের সদস্যদের পাশেও সার্বক্ষণিক থাকব ইনশাআল্লাহ।’

উল্লেখ্য যে, প্রাথমিকভাবে ছয়শত পরিবারের মাঝে ছয় লক্ষ টাকারও বেশি নগদ অর্থ বিতরণ করা হয়। এছাড়াও বিগত দিনে মসজিদ নির্মাণ, বাড়ি পুননির্মাণ, অসহায় ক্যান্সার রোগীদের জন্যে অর্থ প্রেরণ করে গোলাপগঞ্জ সোসাইটি অব পেনসিলভেনিয়া। এদিকে, বন্যার তাণ্ডব শুরু হবার পরই যুক্তরাষ্ট্র জাতীয় পার্টির আহবায়ক আব্দুন নূর বড় ভূঁইয়া

এবং সদস্য-সচিব আসেফ বারি টুটুলের নেতৃত্বে জ্যাকসন হাইটসের রাস্তায় দাঁড়িয়ে নগদ অর্থ সংগ্রহ করার পর তা ঢাকায় জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় নেতার কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এরপর তা বন্যায় মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে বিতরণ করার তথ্য এ সংবাদদাতাকে জানিয়েছেন নেতৃবৃন্দ। নিউইয়র্কে কম্যুনিটির কোন অনুষ্ঠান হলেই সেখানে বন্যার্তদের জন্যে তহবিল সংগ্রহের ঘটনা ঘটছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.