অপরাধ ও নিরপরাধ এই দুইয়ের মাঝখানে এক রহস্যময়ী তরুনী

বিনোদন: সম্প্রতি মুক্তি পাওয়া পরাণ সিনেমাটি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চিত্রনায়িকা বিদ্যা সিনহা মিম একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন। যা পাঠকদের উদ্দেশ্যে তা হুবহু তুলে ধরা হলো:- মফস্বলের মেয়েটি। নাম তার অনন্যা। সুন্দরী সহজসরল মেয়েটি ফেঁসে গেছে খুনের মামলায়। সে নাকি খুন করেছে তারই স্বামীকে।

মেয়েটি যে ছেলেটিকে প্রচন্ড ভালোবাসতো, যাকে জীবনসঙ্গী হিসেবে আপন করে নিয়েছে, সেই মানুষটাকে হত্যার অপরাধে মেয়েটা আজ অপরাধী। কিন্তু মেয়েটি কি সত্যিই অপরাধী, নাকি নিরপরাধ?

সময়ের অন্যতম সেরা নির্মাতা রায়হান রাফী পরিচালিত “পরান” ছবির অনন্যা চরিত্রটির কথা বলছি। অপরাধ ও নিরপরাধ এই দুইয়ের মাঝখানে এক রহস্যময়ী তরুনী অনন্যা।

আর এই অনন্যা চরিত্রে অভিনয় করে ইতোমধ্যেই সাড়া জাগিয়েছে আমাদের সবার প্রিয় বিদ্যা সিনহা মিম। জাতীয় পুরস্কার প্রাপ্ত অভিনেত্রী হিসেবে মিমের কাছে আমাদের সবসময় চাওয়া ছিলো আকাশছোঁয়া।

মিম সেই চাওয়া পূর্ণ করলো পরান ছবিটিতে অভিনয় করে। এতো সুন্দর, এতো সাবলীল অভিনয় মূলধারার বানিজ্যিক ছবির নায়িকাদের মধ্যে এখন খুব কমই দেখা যায়।

পরান ছবিতে মিমকে দেখে মনে হবে এইতো সে পাশের বাড়ির মেয়েটি, এইতো সে এখন আদর্শ প্রেমিকা। আবার জাগবে সন্দেহ, না সে ছলনাময়ী, সে খুনী। আর এই দ্বিধাদ্বন্দে ভরপুর একটি ভার্সেটাইল চরিত্রে অভিনয় করে সবার মন কেড়েছে। আমি নিশ্চিত মিমকে এই ছবিতে দেখে হতাশ হবেনা কেউ।
মিমকে নিয়ে বাংলাদেশের চলচ্চিত্র পরিচালকদের নতুন করে ভাবার সময় এসে গেছে। সৌন্দর্য ও অভিনয়ের মিশেল সচারাচর খুব একটা পাওয়া যায়না এখন আর। আমি বলতে পারি, আমাদের মিম আছে, তাকে সঠিকভাবে কাজে লাগান। ছবি হিট করার দায়িত্ব দর্শকের। পরান প্রমাণ, ভালো ছবির জয় হবেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published.