সেই ‘খেতা বাবা’র ভক্তের স্ত্রী উদ্ধার

সংবাদ: ভক্তের স্ত্রীকে নিয়ে উধাও হওয়া সেই খেতা শাহকে গ্রেপ্তার করতে না পারলেও ভক্তের স্ত্রীকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

গাজীপুরের জয়দেবপুর এলাকার একটি বাড়ি থেকে সোমবার রাত ১২টার দিকে রাবেয়া খাতুন নামের ওই নারীকে উদ্ধার করা হয়। তারাকান্দা থানার

উপপরিদর্শক (এসআই) ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মো. মালেক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘সংবাদের ভিত্তিতে জয়দেবপুর এলাকার একটি বাড়ি থেকে রাবেয়াকে উদ্ধার করা হয়।

এ সময় খেতা শাহ সেখানে ছিলেন না। তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। ’ নেত্রকোনা জেলার পূর্বধলা উপজেলার হীরণপুর গ্রামের কথিত আধ্যাত্মিক ফকির ফজলুল হক তালুকদার ওরফে খেতা শাহর (৬০) সঙ্গে

পরিচয় হয় তারাকান্দার শফিকুলের। দেড় মাস আগে ওই ফকির এসে তার ভক্তের বাড়িতে আশ্রয় নেন। শরীরে একাধিক কাঁথা রাখায় এলাকার সবাই তাকে ‘খেতা বাবা’ বলে ডাকে।

গত ২২ জুন দুপুরের দিকে ভক্তের স্ত্রী রাবেয়া খাতুন (৩৩) ফকির খেতা শাহকে সঙ্গে নিয়ে ধোবাউড়া উপজেলার গোয়াতলায় বাপের বাড়িতে বেড়াতে যান। সেখান থেকে বের হয়ে তারা আর বাড়িতে ফেরেননি। পরে বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুঁজি করেও তাদের আর কোনো খোঁজখবর পাওয়া যায়নি।

পরে এ ঘটনায় ভক্ত শফিকুল থানায় অভিযোগ করেন। অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, যাওয়ার সময় তারা শফিকুল ইসলামের ঘর থেকে গরু বিক্রি করার ৯০ হাজার টাকা নিয়ে যান। এ ব্যাপার নিয়ে তিনি এলাকার জনপ্রতিনিধি ও গণ্যমান্য ব্যক্তিদের দ্বারস্থ হয়েও কোনো সমাধান পাননি।

তারাকান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল খায়ের বলেন, ‘৯ দিন পর ভিকটিমকে সোমবার গাজীপুর জয়দেবপুর থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। আসামি খেতা শাহ পলাতক রয়েছে। তাকেও গ্রেপ্তার করার জন্য চেষ্টা চলছে। ভিকটিমকে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করার জন্য ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। বিকেলে তাকে ময়মনসিংহ মুখ্য বিচারিক হাকিম আদালতে পাঠানো হবে। ’

Leave a Reply

Your email address will not be published.