হাসপাতালে নার্সের মৃত্যু নিয়ে রহস্য, চিরকুটে যা লেখা

কিশোরগঞ্জের ভৈরবে ইউনাইটেড হাসপাতাল এন্ড আর্থোপেডিক সেন্টারে রিমা প্রামাণিক (১৮) নামের এক নার্সের রহস্যজনক মৃত্যুর ঘটনা ঘটে।

সোমবার ভোর রাতে হাসপাতালের দ্বিতীয় তলায় একটি কক্ষে ফাঁসিতে ঝুলে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ নার্সের লেখা চিরকুটসহ তার মোবাইলটি উদ্ধার করে।

চিরকুটে লেখা রয়েছে- ‘আমার মৃত্যু জন্য কেউ দায়ী নয়’। জানা গেছে, রিমা প্রামাণিক গত দুই বছর যাবত ওই হাসপাতালে চাকরি করতেন। পাশাপাশি তিনি ভৈরবের সরকারি জিল্লুর রহমান

মহিলা কলেজে পড়াশুনা করতেন। তিনি হাসপাতালের একটি কক্ষে থাকতেন। ঈদের আগে তিনি ছুটিতে গ্রামের বাড়ি রায়পুরায় গিয়েছিলেন। কিন্তু কর্তৃপক্ষের জরুরি ফোন পেয়ে

রিমা ঈদের আগের দিন শনিবার বিকালে হাসপাতালে চলে আসেন। রোববার রাতে হাসপাতালের কক্ষে ঘুমাতে যান রিমা। ভোর ৪টার দিকে সে ওড়না পেঁচিয়ে পাখার সাথে ঝুলে আত্মহত্যা করে বলে জানায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

ঠিক কি কারণে তিনি আত্মহত্যা করলেন কেউ বলতে পারছে না। খবর পেয়ে পুলিশ সকালে হাসপাতাল থেকে তার লাশ উদ্ধার করে।হাসপাতালের মালিক মো. আলআমিন জানান, মেয়েটি খুব ভাল ছিল। কেন, কি কারণে সে আত্মহত্যা করল আমরা বুঝতে পারছি না। মৃত্যুর আগে সে একটি চিরকুটে লিখে গেছে- ‘তার মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী নয়’।

নিহত রিমার মা বিচিত্রা পাল অভিযোগ করেন, আমার মেয়ে পুলিশে চাকরি নিতে ছুটিতে বাড়ি গিয়েছিল। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের জরুরি ফোন পেয়ে শনিবার সে চলে আসে। আত্মহত্যা করার মতো কোনো ঘটনা ঘটেনি। কিন্তু সে কেন আত্মহত্যা করবে তা আমার কাছে রহস্য মনে হচ্ছে।

ভৈরব থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. গোলাম মোস্তফা জানান, ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ সোমবার সকালে নার্সের লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। এ বিষয়ে থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য কিশোরগঞ্জ পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়া গেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তিনি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.