প্রেসিডেন্ট গোটাবায়া রাজাপাকসের বাড়িতে মিললো লক্ষ লক্ষ টাকা

আন্তর্জাতিক: শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট গোটাবায়া রাজাপাকসের সরকারী বাসভবনে হামলা চালিয়েছিলেন বিক্ষোভকারীরা।

তাঁদের দাবি রাষ্ট্রপতির প্রাসাদের ভিতরে লক্ষ লক্ষ টাকার সন্ধান মিলেছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও শেয়ার করা হয়েছে যেখানে বিক্ষোভকারীদের

খুঁজে পাওয়া নোটগুলি গুনতে দেখা গেছে। ডেইলি মিরর পত্রিকা জানিয়েছে, উদ্ধারকৃত অর্থ নিরাপত্তা ইউনিটের কাছে হস্তান্তর করার কথা বলা হয়েছে।

কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে যে তারা প্রাসঙ্গিক তথ্যগুলি তদন্ত করার পরে এবিষয়ে নির্দিষ্ট পদক্ষেপ নেবে। শনিবার বিক্ষোভকারীরা কলম্বোর উচ্চ-নিরাপত্তা ফোর্ট

এলাকায় রাজাপাকসের বাসভবনে ব্যারিকেড ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করে। দ্বীপ রাষ্ট্রের সবচেয়ে খারাপ অর্থনৈতিক সঙ্কটের কারণে গোটাবায়া রাজাপাকসের

পদত্যাগ দাবি করেছেন বিক্ষোভকারীরা। বিক্ষোভকারীদের আরেকটি দল প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমাসিংহের ব্যক্তিগত বাসভবনে ঢুকে আগুন ধরিয়ে দেয়।প্রেসিডেন্টের অবস্থান এখনও জানা যায়নি। বিক্ষোভকারীরা শহরে ঢুকে পড়ার পর থেকে তার একমাত্র যোগাযোগ ছিল সংসদের স্পিকার মাহিন্দা ইয়াপা আবেওয়ার্দেনার সাথে,

যিনি শনিবার গভীর রাতে ঘোষণা করেছিলেন যে প্রেসিডেন্ট বুধবার পদত্যাগ করবেন। প্রেসিডেন্ট রাজাপাকসে শনিবার সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত নেতাদের সর্বদলীয় বৈঠকের পর পদত্যাগের এই সিদ্ধান্তের বিষয়ে স্পিকারকে অবহিত করেন।

প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রী উভয়ের অনুপস্থিতিতে স্পিকার দেশের ভারপ্রাপ্ত রাষ্ট্রপতির দায়িত্ব পালন করবেন।পরবর্তীতে নতুন রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের জন্য সংসদ সদস্যদের মধ্যে একটি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে । প্রধানমন্ত্রী বিক্রমাসিংহকেও পদত্যাগের প্রস্তাব দেয়া হয়েছে ।মে মাসে, প্রেসিডেন্ট গোটাবায়া রাজাপাকসের বড় ভাই তথা প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসেকে সরকার বিরোধী ব্যাপক বিক্ষোভের মুখে পড়ে পদত্যাগ করতে হয়েছিল।

একসময়ে এলটিটিই-র বিরুদ্ধে গৃহযুদ্ধে জয়লাভের জন্য রাজাপাকসে ভাইদের নায়ক হিসাবে প্রশংসা করা হয়েছিল কিন্তু তারাই এখন দেশের সবচেয়ে খারাপ অর্থনৈতিক সংকটের জন্য দায়ী। বুধবার প্রেসিডেন্ট গোটাবায়া রাজাপাকসের প্রত্যাশিত প্রস্থান এবং প্রধানমন্ত্রী হিসাবে মাহিন্দা রাজাপাকসের পদত্যাগ শ্রীলংকার রাজনীতিতে এক নতুন মাত্রা যোগ করেছে।

একটি শক্তিশালী পরিবারের নাটকীয় পতন প্রত্যক্ষ করেছেন শ্রীলঙ্কাবাসী । ২২ মিলিয়ন জনসংখ্যার দেশটি বর্তমানে এক অভূতপূর্ব অর্থনৈতিক অস্থিরতার মধ্যে রয়েছে। বৈদেশিক মুদ্রার তীব্র ঘাটতির কারণে পঙ্গু হয়ে গেছে শ্রীলঙ্কার অর্থনীতি। শ্রীলঙ্কার মোট বৈদেশিক ঋণ দাঁড়িয়েছে ৫১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।
সূত্র : oneindia.com

Leave a Reply

Your email address will not be published.