বৃদ্ধ বয়সেও কত কষ্ট করে পরিবার চালায় , ২ মিনিট সময় নিয়ে পড়ুন অশ্রুতে দুই চোখ ছলছল হয়ে যাবে

সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এক বৃদ্ধ বাবার পরিবারের দায়িত্ব নেওয়ার ফোনের কথপকথন সুন্দর করে তুলে ধরেছেন একজন ব্যক্তি।

যার পরিচয় জানা যায়নি কিন্তু তিনি বৃদ্ধ বাবার পরিবারের দায়িত্ব নেওয়ার কথা গুলো সুন্দর করে ফুটিয়ে তুলেছে যা সত্যিই অসাধারণ। এই কথোপকথন গুলো ঘুরতে থাকে বিভিন্ন গ্রুপে গ্রুপে এবং বিভিন্ন পেজে। যা পাঠকদের উদ্দেশ্যে হুবহু তুলে ধরা হলো:-

একজন চালক। তাঁর পরিবারের পরিচালক। সারাদিন কাজ করার পর বাড়িতে কথা বলছেন, কোনো চিন্তা করিও না। আমি তো আছি, টেকা পাঠায়া দিমু। সব ঠিকঠাক মতোন চালাইয়ো।

আমি দাড়িয়ে দাড়িয়ে উনার কথা শুনছিলাম, আর ভাবছিলাম, আহা জীবন, এই বয়সেও নিস্তার নাই! ছবি তুললাম আর উনাকে বললাম, চাচা আপনার একটা ছবি তুলেছি,

আপনি যখন কথা বলছিলেন! কিছু মনে করেন নি তো? হাতে ইশারা দিয়ে সম্মতি দিলেন,সমস্যা নাই। চাচা,কিছু খাবেন? উনি মাথা নেড়ে না করলেন! উনার চোখে লেগে আছে পরিবার নিয়ে নানা জটিলতার চিন্তা! চাচা, আমি কি কোনো সহযোগিতা করতে পারি?

কথা বললেন না! ইশারা করলেন আপন গতিতে! আমি বুঝে নিলাম, উনি একা একাই ভাবতে চাইছেন। যেটা তিনি তার পরিবার চালাতে গিয়ে হয়তো সারা জীবন ভেবে চলেছেন!

এমন লক্ষ লক্ষ, কোটি কোটি পরিবারের পরিচালক ভেবে আসছেন তার পরিবার নিয়ে! কিন্তু উনার বয়স টা আমাকে খুব ভাবিয়ে তুলেছে! এই বয়সেও তিনি নিস্তার পাচ্ছেন না। হয়তো দুনিয়া ছেড়ে চলে যাওয়ার পরও পাবেন না!

শ্রদ্ধা শ্রদ্ধা আর শ্রদ্ধা আপনাদের এবং আপনার জন্য। মহান আল্লাহ’র কাছে চাইলাম, আল্লাহ উনাদের জন্য কিছু করবার শক্তি যদি আমাকে দিতেন!!

বিঃদ্রঃ উনারা শুধু রিক্সা চালক না। এক একটি পরিবারের পরিচালক হিসেবে আমাদের কাছে সন্মান প্রাপ্য। যার যার জায়গা থেকে যেনো আমরা তা ভাবনার জায়গায় আনতে পারি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.