ধ’র্ষণ নিয়ে কেরালা হাইকোর্টের ঐতিহাসিক রায়

আন্তর্জাতিক: ভারতে যৌনতা আর স’হবাসের সংজ্ঞা যেন নি’মেষে বদলে গেল। কেরালা হাইকোর্টের একটি রায়ে বিবাহের প্রতিশ্রুতি দিয়েও

কেউ যদি যৌ’নতা ও সহবাসে লিপ্ত হন তাহলে তা ধ’র্ষণের পর্যায়ে পড়ে না — কেরালা হাই কোর্টের বিচারপতি বেচু কুরিয়ান টমাস এর একটি রায়ে ভারতে সব কিছুতে বদল আসার উপক্রম।

টমাস কুরিয়ান এক আইনজীবীর এক মহিলার সঙ্গে চার বছরের সম্পর্ক সংক্রান্ত একটি মা’মলার রায় দিতে গিয়ে সম্মতিতে সহবাস কে ধর্ষণ তুল্য অপরাধ বলে মান্যতা দিতে রাজি হননি।

তিনি রায়ে সাফ বলেন কোনও তরুণী যখন বিয়ের প্রতিশ্রুতি পেয়ে যৌ’নতায় ‘লি’প্ত হয় তখন সে সম্মতিক্রমেই সহবাস করে। পরে নানা কারণে বিয়ে না হলেই তা ধ’র্ষণ বলে গণ্য করা যায়না।

বিচারপতি কুরিয়ান বলেছেন, ধ’র্ষণ সেটাই যেখানে একজনের অনিচ্ছা সত্ত্বেও যৌ’ন সম্পর্ক স্থাপন করা হচ্ছে। তিনি অবশ্য একটি রিলিফ দিয়েছেন। রায়ে বলেছেন যে যদি অসৎ

উদ্দেশ্যে কেউ বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে নারী অথবা নর কে সংগমে প্রাণিত করে সেটি ধ’র্ষণ বলে বিবেচিত হতে পারে। এই শুক্ষ বিচারটা আইনকেই করতে হবে বলে তিনি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.