আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতা, মন্ত্রী ও এমপিরা কে কোথায় ঈদ করবেন জেনে নিন

রাজনীতিবিদরাও ঈদুল আজহা উদযাপনের প্রস্তুতি শুরু করেছেন। এবারও নিজ নিজ এলাকায়

ঈদ উদযাপন করবেন চট্টগ্রাম আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতা, মন্ত্রী ও এমপিরা। তবে একজন অন্যত্র ঈদ করবেন বলে জানা গেছে। ঈদ উপলক্ষে গ্রাম এবং শহরের বাসা-বাড়িতে তাঁরা দলের নেতাকর্মীদের সাথে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন।

আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, গণপূর্ত মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও সাবেক মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি যুক্তরাজ্যে রয়েছেন। পারিবারিক একটি কাজে তিনি গত ২৯ জুন লন্ডন যান। আগামী ২৩ জুলাই তিনি দেশে ফিরবেন।

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ ঈদুল আজহার নামাজ আদায় করবেন গ্রামের বাড়ি রাঙ্গুনিয়ার পদুয়া ইউনিয়নের সুখবিলাসে।

নিজ বাড়ি সংলগ্ন জামে মসজিদে ঈদের নামাজ শেষে কোরবানি দিবেন তিনি। এরপর স্থানীয় জনসাধারণ ও দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন। রাতে তিনি চট্টগ্রাম নগরীর বাসায় ফিরবেন।

ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ শহরে ঈদের নামাজ আদায় করবেন। ঈদের দিন নগরের সার্সন রোডের বাসভবনে অবস্থান করবেন। গ্রামের বাড়ি আনোয়ারা ও নগরের বাসায় কোরবানির পশু জবাই করা হবে। সন্ধ্যায় নেতাকর্মীদের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন।

শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল নগরের চশমা হিল মসজিদে ঈদের নামাজ আদায় করবেন। নামাজ শেষে পিতাসহ আত্মীয়-স্বজনের কবর জেয়ারত করবেন। চশমাহিলস্থ বাসভবনে কোরবানি দিবেন। বিকালের পর থেকে দলের নেতাকর্মীদের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন। চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী সকালে বাসভবনের পাশের মসজিদে ঈদের নামাজ আদায় করবেন। নগরের পল্টন রোডের বাসভবনে কোরবানি দিবেন।

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র ও নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন জমিয়াতুল ফালাহ জামে মসজিদে ঈদের প্রথম জামাতে নামাজ আদায় করবেন। এরপর তিনি কদম মোবারক মসজিদের পাশে পিতাসহ আত্মীয়-স্বজনের কবর জেয়ারত করবেন। বাসায় এসে কোরবানি শেষে পরিবার, নেতা-কর্মী, শুভাকাঙ্ক্ষিদের সাথে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন। বাসায় আগত নেতা-কর্মী ও মেহমানদের পরোটা-মাংস দিয়ে আপ্যায়ন এবং আশপাশের গরীব ও অসহায় মানুষের মাঝে মাংস বিতরণ করবেন তিনি।

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলাম সাতকানিয়া উপজেলায় বারদোনা গ্রামের বাড়ি ঈদগাহ ময়দানে ঈদের নামাজ আদায় করবেন। সেখানে বাড়িতে কোরবানি দিবেন। বিকালের পর থেকে দলের নেতাকর্মীদের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন। চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. রেজাউল করিম চৌধুরী নগরের বহদ্দার বাড়ির শাহী জামে মসজিদে ঈদের নামাজ আদায় করবেন। এরপর তিনি বাড়িতে কোরবানি দিবেন। বেলা ১১টা থেকে সাড়ে ১১টার দিকে বের হয়ে নগরীর বিভিন্ন স্পটে যাবেন। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ময়লা অপসারণ হচ্ছে কি-না তা পর্যবেক্ষণ করবেন মেয়র।

চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বোয়ালখালী আসনের এমপি মোছলেম উদ্দীন আহমদ নগরের জমিয়তুল ফালাহ জাতীয় মসজিদে ঈদের নামাজ আদায় করবেন। নগরের লালখান বাজার বাসভবনে কোরবানি দিবেন। ঈদের পরদিন বোয়ালখালীর কধুরখীল গ্রামের বাড়িতে নেতাকর্মীদের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন।

চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম এ সালাম ঈদের নামাজ আদায় করবেন হাটহাজারীর শিকারপুর গ্রামের বাড়িতে। সেখানে তিনি কোরবানি দিয়ে এলাকাবাসীর সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন। দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান সাতকানিয়া থানার খাগরিয়ায় ইউনিয়নে গ্রামের বাড়িতে ঈদের নামাজ আদায় করবেন। কোরবানিও দেবেন গ্রামের বাড়িতে। বিকালে তিনি দলের নেতাকর্মীদের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.