যে কারণে একসঙ্গে পরপারে বাড়িওয়ালা-ভাড়াটিয়া গৃহবধূ!

বন্দরে বাড়িওয়ালা ও ভাড়াটিয়া গৃহবধূর পরকীয়া প্রেমের কথা ফাঁ’স হওয়ায় লোকলজ্জার ভয়ে বাড়িওয়ালা প্রেমিক

এমদাদ হোসেন ওরফে ইমরান (৪৮) ও ভাড়াটিয়া প্রেমিকা শিল্পী সূত্রধর ওরফে বৃষ্টি (২৬) বিষপানে আত্মহ’ত্যা করেছেন।

বুধবার গভীর রাতে বন্দর উপজেলার কলাগাছিয়া ইউনিয়নের উত্তর নিশং এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আত্মহননকারী এমদাদ হোসেন ওরফে ইমরান বন্দর

উপজেলার কলাগাছিয়া ইউনিয়নের উত্তর মহনপুর এলাকার মৃত হোসেন মিয়ার ছেলে। তিনি দুই সন্তানের জনক বলে জানা গেছে। শিল্পী সূত্রধর ওরফে বৃষ্টিও দুই সন্তানের জননী বলে জানা গেছে।

ঘটনার সংবাদ পেয়ে বন্দর থানার ওসি দীপক চন্দ্র সাহা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ ব্যাপারে বন্দর থানায় পৃথক দুইটি আত্মহ’ত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এলাকাবাসী জানান, গত ২ মাস আগে শিল্পী সূত্রধর ওরফে বৃষ্টি দুই সন্তান নিয়ে বন্দর উপজেলার কলাগাছিয়া ইউনিয়নের উত্তর মহনপুরের বাসিন্দা ও ঢাকার বাদামতলীর চাল ব্যবসায়ী এমদাদ হোসেন ওরফে ইমরানের বাড়িতে ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস শুরু করেন। এরই মধ্যে বাড়িওয়ালা এমদাদ হোসেন ও বৃষ্টির মধ্যে পরকীয়া সম্পর্ক গড়ে উঠে।

পরকীয়া প্রেমের বিষয়টি বেশ কিছু দিন আগে বাড়িওয়ালার স্ত্রীসহ এলাকাবাসী টের পান। এ নিয়ে এমদাদ হোসেনের সঙ্গে তার স্ত্রীর কথা কাটাকাটি হয়। এর জের ধরে বুধবার গভীর রাতে লোকলজ্জার ভয়ে এমদাদ হোসেন ও বৃষ্টি বিষপান করেন। এতে তারা অসুস্থ হয়ে পড়লে এলাকাবাসী দুইজনকে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুইজনই মারা যান।

এ ব্যাপারে বন্দর থানার ওসি দীপক চন্দ্র সাহা জানান, আত্মহ’ত্যার ঘটনার খবর পেয়ে আমি দ্রুত ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। লাশ ২টি নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল থেকে উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেছি। এ ব্যাপারে এমদাদ হোসেনের স্ত্রী সাহিদা বেগম ও বৃষ্টির স্বামী বাদী হয়ে বন্দর থানায় পৃথক দুইটি অপমৃত্যুর মামলা দায়ের করেছেন। তবে আত্মহত্যার প্রকৃত কারণ এখনো জানা যায়নি। আত্মহ’ত্যার কারণ জানার চেষ্টা চলছে বলে ওসি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.