ফের পদত্যাগ করলেন বিএনপির ছয় নেতা!

রাজনীতি: বরিশাল দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির ছয় নেতা পদত্যাগ করেছেন। তাঁরা দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের কাছে

পদত্যাগপত্র পাঠিয়েছেন। ওই ছয় নেতা দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক মজিবুর রহমান নান্টুর বিরুদ্ধে স্বেচ্ছাচারিতা ও খামখেয়ালিপনার অভিযোগ এনেছেন।

পদত্যাগ করা নেতারা হলেন- বানারীপাড়া উপজেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শাহ আলম মিঞা, সাবেক সাধারণ সম্পাদক রিয়াজ উদ্দীন আহম্মেদ, পৌর বিএনপির সদ্য বিলুপ্ত কমিটির সভাপতি মো. আহসান কবির,

সাধারণ সম্পাদক আবদুস সালাম, জেলা আহ্বায়ক কমিটির সদস্য গোলাম মাহবুব মাস্টার ও মহিলা দলের সদস্য ডেইজি আক্তার। তাঁরা সবাই দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য।

পদত্যাগপত্রে ছয় নেতা উল্লেখ করেন, গত নভেম্বরে দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটি গঠনের পর আহ্বায়ক মজিবুর রহমান নান্টু নানা ধরনের স্বেচ্ছাচারী কর্মকাণ্ড চালাচ্ছেন। তাঁর খেয়াল খুশিমতো দলের বিভিন্ন স্তরের কমিটি বিলুপ্ত করছেন।

এতে দলের সব পর্যায়ে বিশৃঙ্খলা ও ক্ষোভ বিরাজ করছে। পদত্যাকারী মো. আহসান কবির বৃহস্পতিবার বিকেলে বলেন, আমি কয়েকদিন আগে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে ছিলাম। এর মধ্যে আমাকে না জানিয়ে

গত শুক্রবার বানারীপাড়ায় এসে মজিবর রহমান নান্টু পৌর বিএনপির কমিটি বিলুপ্ত করেন। সম্পূর্ণ খামখেয়ালি করে তিনি দল চালাচ্ছেন। আমরা এর প্রতিকার চাইলেও কোনো সমাধান পাইনি। তাই বাধ্য হয়ে পদত্যাগ করেছি। তিনি আরও বলেন, জেলা আহ্বায়ক কমিটির আরও এক সদস্য সরফুদ্দিন আহম্মেদ

সান্টু মঙ্গলবার পদত্যাগ করেছেন। আহ্বায়কের এমন আচরণে দলের সব নেতাকর্মী ক্ষুব্ধ-বিরক্ত। এ বিষয়ে জানতে চাইলে মজিবুর রহমান নান্টু বলেন, আমরা গঠনতন্ত্র মেনে দল পরিচালনা করছি। ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশনায় সব সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

গত ৩ জুলাই আমরা জেলা বিএনপির ১৯ নেতাকে নিয়ে বানারীপাড়া বিএনপির কার্যালয়ে পূর্বনির্ধারিত সভা করতে যাই। আগে থেকেই কার্যালয়ে তালা ঝুলিয়ে দেওয়ায় আমরা সভা করতে পারিনি। তাঁদের ভাষ্য ছিল- সরফুদ্দিন সান্টুর অনুমতি ছাড়া দলীয় কার্যক্রম চালানো যাবে না। একটি দল তো কোনো ব্যক্তির ইচ্ছা-অনিচ্ছার ওপর নির্ভর করে চলতে পারে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published.