সিগারেট খোরদের জন্য যেমন শিক্ষণীয়, সাধারণ মানুষের জন্যও শিক্ষণীয়!

ধুম পান ছেড়ে দেবার পর ৭ বছরে ধুম পান বাবদ জমানো টাকা ২ লক্ষ ৪৫ হাজার ৯৫ টাকা।

চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলার শাহিন নামের এক ভদ্রলোক। ২০১৪ সালের ১০ ডিসেম্বর তিনি স্ত্রীকে কথা দেন,

তিন আর ধুম পান করবেন না। স্ত্রী জিজ্ঞেস করেন, “সিগারেট কেনার পেছনে প্রতিদিন আপনার কতো টাকা খরচ হয়?”

শাহিন জবাব দেন, “কোনোদিন ৫০ টাকা, কোনোদিন ১০০ টাকা, কোনোদিন ১৫০ টাকা স্ত্রী পরামর্শ দিলেন,। “ঠিক আছে, এখন থেকে আপনার সিগা*রেট কেনার খরচ আমার কাছে জমা রাখবেন।

ঠিক আছে?” সেই থেকে টাকা জমানো শুরু। ৭ বছর পর সঞ্চিত অর্থ ভেঙ্গে দেখা গেলো মোট ২,৪৫,০৯৫ টাকা হয়েছে। এই সাত বছর জনাব শাহিন যে টাকাগুলো ব্যয় করতেন সিগারেট কেনার পেছনে,

সেই টাকা জমিয়ে রাখায় একসাথে এতো টাকা হয়েছে। টাকাগুলো তিনি তার সন্তানদের পড়ালেখার পেছনে ব্যয় করবেন বলে জানান। ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র বালুকণা বিন্দু বিন্দু জল।

কবিতার মতো দেখা যায় জনাব শাহিনের জমানো টাকা তার কাছে অনেকটা মহাদেশ, সাগরের মতো হয়ে গেছে। যেকোনো ব!দ অভ্যাস ত্যাগ করার পর সেই অভ্যাসের পেছনে আগে যতো টাকা খরচ হতো, সেগুলো জমানো শুরু হলে একসময় মোটা অংকের টাকা হয়ে যাবে। জনাব শাহিনের গল্প সিগারেট খোরদের জন্য যেমন শিক্ষণীয়, সাধারণ মানুষের জন্যও শিক্ষণীয়!

Leave a Reply

Your email address will not be published.