স্ত্রীকে পেটালেন কেন? জবাবে স্বামী তুললেন পদ্মা সেতুর কথা

চট্টগ্রামের রাউজানে যৌতুকের টাকা না পেয়ে স্ত্রীকে পেটানোর অভিযোগ উঠেছে আলমগীর তালুকদার নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে।

পেটানোর অভিযোগ স্বীকার করলেও যৌতুকের বিষয়টি এড়িয়ে গিয়ে আলমগীর বলছেন, পদ্মা সেতুর টোলের আয়ের হিসাব শেখাতে গিয়ে স্ত্রীকে দু’টি ‘বাড়ি’ দিয়েছেন তিনি।

আলমগীর তালুকদার বলেন, কৌতূহলবশত স্ত্রী তাওহিদুন্নেসাকে পদ্মা সেতুর উদ্বোধনের পর আদায়কৃত টোলের টাকার ওপর ভিত্তি করে পুরো বছর আয় কত হবে তা বের করতে বলেছিলাম।

কিন্তু সে কোনো হিসাব করতে পারেনি। অথচ বিয়ের সময় তার পরিবার বলেছে সে আলিম পাস। এই রাগে স্ত্রীকে চিকন একটি লাঠি দিয়ে হাতে ও পায়ে দু’বার পেটানোর কথা স্বীকার করেছেন আলমগীর।

২৬ জুন ঘটনাটি ঘটেছে। এ বিষয় নিয়ে আলমগীর এখন উল্টো অভিযোগ করছেন, তার শ্বশুর ঘটনাটিকে অন্য দিকে নেওয়ার চেষ্টা করছেন। তাওহিদুন্নেসার বাবা মোস্তাক আহম্মদ বলেন, চার বছর আগে তাওহিদুন্নেসার সঙ্গে আলমগীরের বিয়ে হয়।

বিয়ের আগে আলমগীর প্রবাসী ছিলেন। এরপর দেশে থেকে কোথাও যাননি। এমনকি কোনো কাজও করে না। আমার মেয়ে কাপড় সেলাই করে সংসার চলায়। আলমগীর যৌতুকের জন্য প্রায় সময় আমার মেয়েকে মারধর করতো। কিন্তু কয়েকদিন আগে ব্যবসা করার জন্য মেয়ের কাছে ৫ লাখ টাকা যৌতুক চায়।

কিন্তু আমরা গরীব মানুষ দিতে পারিনি। তাই লাঠি দিয়ে আমার মেয়ের হাতে-পায়ে মারধর করেছে। আমার মেয়ের হাত ভেঙে গেছে। মেয়ে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে বর্তমানে বাঁশখালীতে আমার বাড়িতে আছে। আমি আমার মেয়ের ওপর নির্যাতনের বিচার চাই।

এই ঘটনায় মামলা করবেন বলেও জানান তিনি।যৌতুকের জন্য মারধরের বিষয়টি অস্বীকার করে রাউজানের বাগোয়ান ইউনিয়নের আলমগীর তালুকদার বলেন, যৌতুক আমাদের পরিবার গ্রহণ করে না। বিয়ের সময়ই কোন যৌতুক নেইনি।

তিনি বলেন,পদ্মা সেতুর উদ্বোধনের পর দিন ২৬ জুন ফেসবুকে পদ্মা সেতুর টোল আদায়ের দৈনিক হিসাব দেখি। একপর্যায়ে স্ত্রীকে বলি প্রতিদিন যদি ২ কোটি টাকা টোল আদায় হয়, তাহলে মাসে কত কোটি টাকা আয় হবে? সে এর উত্তর ভালোভাবে দিতে পারেনি। এরপর তাকে আমি প্রশ্ন করি বছরে আয় কত? সে এই প্রশ্নের কোনো উত্তর দিতে পারেনি।

আলমগীরের দাবি ঘটনার তিন দিন পর মিথ্যা অভিযোগ সাজানোর জন্য মেডিকেলে ভর্তি করানো হয় স্ত্রীকে। রাউজান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল্লাহ আল হারুন ঢাকা পোস্টকে বলেন, তাওহিদুন্নেসাকে নির্যাতনের বিষয়ে কেউ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.