মা হাসপাতালে, স্ত্রী প্রেগন্যান্ট-আমার গায়ের চামড়া কেটে ঋণ পরিশোধ করতে পারবো না

আমার গায়ের চামড়া কেটে ঋণ পরিশোধ করতে পারবো না।
আমার মা বর্তমানে হাসপাতালে মুমূর্ষ অবস্থায় চিকিৎসাধীন আছে, আমার বউ প্রেগনেট। গতকাল আমাকে বিনা কারনে চাকরি থেকে

বাদ দিছে। বাসা ভাড়া দিতে না পারায় বাসা থেকে অপমান করে বের করে দিছে। আমি রাস্তায় বেরিয়ে পড়েছি । আমার অসুস্থ্য মা ও সন্তান সম্ভবা বউয়ের কথা ভেবে পায়ের নিচ থেকে মাটিগুলো

সড়ে যাচ্ছিলো।ফেসবুকে ঢুকলাম। ওয়াবে একটা কলেজে অফিস সহায়ক পদে নিয়োগের জন্য পোস্টটা চোখে পড়তেই কাকুতি মিনতি করে আল্লার নাম নিয়ে একটা কমেন্ট করলাম। আমার চেয়ে যোগ্য

প্রার্থীকে দেখে ভাবছিলাম চাকরিটা হয়তো হবে না আমার। এরপর আবার সোনার চামচ মুখে দিয়ে জন্ম নেয়া বিভিন্ন মানুষের কটাক্ষ করে কমেন্টে খুব কষ্ট পেয়েছি।হঠাৎ মেসেঞ্জারে মেসেজ আসলো

আপনি ওয়াবে চাকরির নিয়োগ পোস্টে কমেন্ট করেছেন আপনাকে যাচাই করতে চাই। নাম্বার আদান প্রদান করলাম। এরপর বললো যে আপনি যেখানে থাকেন দ্রুত আমাদের বিসিআই কলেজ উত্তরাতে

আসুন। তাড়াতাড়ি উত্তরা চলে আসলাম। ভাইবা দেয়ার পরে জানতে পারি উনি ছিলেন জনাব মোঃ আসাদুজ্জামান আসাদ স্যার, প্রিন্সিপাল, B C I College, উত্তরা ।জীবনের সবচেয়ে কঠিনতম

সময়ে ওয়াব পরিবার যেভাবে সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছে আমি সত্যিই কৃতজ্ঞ। আমার গায়ের চামড়া কেটে এ ঋণ পরিশোধ করার মত নয়। ধন্যবাদ প্রিন্সিপাল আসাদ স্যার ও BCI College,

উত্তরা কর্তৃপক্ষ।ওয়াবের এডমিন স্যারদের কাছে আবেদন আপনারা আমার মত অসহায় বেকার যাদের কোন সুপারিশ করার লোক নেই তাদের জন্য কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করার ক্ষেত্র তৈরী করুন। আমার জন্য দোয়া করবেন। ধন্যবাদ সবাইকে।
আসসালামু আলাইকুম।